Runner Automobiles
Sea Pearl Beach Resort & SPA Ltd
Share Business Logo
bangla fonts
facebook twitter google plus rss

সংকট কাটাতে আলিফ গ্রুপের মালিকানায় যাচ্ছে বিডি ওয়েল্ডিং


৩০ জুলাই ২০১৯ মঙ্গলবার, ০১:৪৩  পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক


সংকট কাটাতে আলিফ গ্রুপের মালিকানায় যাচ্ছে বিডি ওয়েল্ডিং

তারল্য সংকটে থাকা বাংলাদেশ ওয়েল্ডিং ইলেকট্রোডস লিমিটেডের (বিডি ওয়েল্ডিং) শেয়ার কিনে নিচ্ছে আলিফ গ্রুপ। রাষ্ট্রায়ত্ত বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠান ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) কাছ থেকে কোম্পানিটির ২৫ দশমিক ২৬ শতাংশ শেয়ার কিনে নেবে আলিফ গ্রুপ। এজন্য এরই মধ্যে আইসিবির সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। তবে শেয়ার হস্তান্তরের বিষয়টি নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কাছ থেকে অনুমোদন পাওয়ার পর কার্যকর হবে।

জানা যায়, বিডি ওয়েল্ডিংয়ের আর্থিক অবস্থা পরিবর্তনের জন্য আইসিবির পক্ষ থেকে বিভিন্নভাবে চেষ্টা করা হয়েছে। কোম্পানিটির চেয়ারম্যানসহ পর্ষদে বর্তমানে আইসিবি মনোনীত তিনজন পরিচালক রয়েছেন। তবে তারল্য সংকটে থাকা কোম্পানিটিতে নতুন করে বিনিয়োগের পরিস্থিতি না থাকায় আইসিবির পক্ষে এর আর্থিক অবস্থা পরিবর্তন করা সম্ভব হচ্ছিল না। এ কারণে বিডি ওয়েল্ডিংয়ের তারল্য সংকট কাটানোর জন্য কোম্পানিটিতে বিনিয়োগে আগ্রহী প্রতিষ্ঠান খুঁজছিল আইসিবি। বেশকিছু প্রতিষ্ঠান আগ্রহ দেখালেও শেষ পর্যন্ত আলিফ গ্রুপকেই শেয়ার বিক্রির জন্য যোগ্য বলে মনে হয়েছে আইসিবির কাছে। আইসিবির কাছে থাকা বিডি ওয়েল্ডিংয়ের ১ কোটি ৮ লাখ ৪০ হাজার শেয়ার আলিফ গ্রুপের কাছে বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত বিনিয়োগ প্রতিষ্ঠানটি। স্টক এক্সচেঞ্জে কোম্পানিটির গত ৩০ কার্যদিবসে সমাপনী দরের ভারিত গড় হার অনুযায়ী এর শেয়ার বিক্রি করা হবে। গত ৩০ কার্যদিবসে কোম্পানিটির শেয়ার সর্বোচ্চ ১৭ টাকা ১০ পয়সা থেকে ১৫ টাকা ২৯ পয়সার মধ্যে ওঠানামা করেছে।

জানতে চাইলে আইসিবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী সানাউল হক বলেন, অনেকদিন ধরেই বিডি ওয়েল্ডিং আর্থিকভাবে সমস্যার মধ্যে ছিল। চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় স্থানান্তর করার পরও পর্যাপ্ত অর্থের অভাবে কোম্পানিটি কারখানা চালু করতে পারেনি। অন্যদিকে আইসিবির পক্ষেও কোম্পানিটির অবস্থা পরিবর্তনে ভূমিকা রাখা সম্ভব হচ্ছিল না। তাই আমরা চাইছিলাম এমন কোনো গ্রুপের কাছে কোম্পানিটির শেয়ার বিক্রি করতে, যারা এখানে বিনিয়োগ করে এর অবস্থার পরিবর্তন করতে পারবে। প্রাথমিকভাবে আলিফ গ্রুপের কাছে শেয়ার বিক্রির জন্য আইসিবির একটি চুক্তি হয়েছে। তবে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসির অনুমোদনসাপেক্ষে বিষয়টি চূড়ান্ত হবে বলে জানান তিনি।

১৯৬৭ সালে যাত্রা করা আলিফ গ্রুপের বর্তমানে টেক্সটাইল, গার্মেন্টস, মার্চেন্ট ব্যাংক, অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি, রিয়েল এস্টেট, গান বাংলা টিভি, বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ফ্র্যাঞ্চাইজি বরিশাল বার্নার্স ও ইস্টার্ন ইউনিভার্সিটিতে বিনিয়োগ রয়েছে। গ্রুপটির নিজেদের কোনো কোম্পানি পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত না হলেও এখন পর্যন্ত দুটি তালিকাভুক্ত কোম্পানির মালিকানা কিনে নিয়েছে তারা। এর মধ্যে ২০১৭ সালে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের মালিকানাধীন সিএমসি কামালকে কিনে নেয় গ্রুপটি। তাছাড়া একই বছর ওভার দ্য কাউন্টার মার্কেটে (ওটিসি) থাকা সজীব নিটওয়্যারকেও কিনে মূল মার্কেটে নিয়ে আসে আলিফ গ্রুপ। পুঁজিবাজারের আরেক সমস্যাগ্রস্ত কোম্পানি সেন্ট্রাল ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডকে কিনে নেয়ার জন্য ২০১৭ সালের শুরুতে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছিল আলিফ গ্রুপ। তবে পরবর্তীতে সেই চুক্তি থেকে সরে আসে গ্রুপটি। সর্বশেষ গত বছর স্বল্প মূলধনি কোম্পানি বিডি অটোকারস ও লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের ১০ শতাংশের বেশি শেয়ার কিনে নেয় আলিফ গ্রুপ। এতে কোম্পানি দুটির শেয়ারের দর অস্বাভাবিক বেড়ে যায়। এর পরিপ্রেক্ষিতে বিএসইসির পক্ষ থেকে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কমিশনের তদন্তে বিডি অটোকারস ও লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের শেয়ারের অস্বাভাবিক দর বাড়ার পেছনে আলিফ গ্রুপের সংশ্লিষ্টতা প্রমাণ হওয়ায় চলতি বছরের ২২ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত কমিশন সভায় আলিফ গ্রুপের চেয়ারম্যান আজিজুল ইসলাম, তার ছেলে গ্রুপটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আজিমুল ইসলাম, চেয়ারম্যানের স্ত্রী লুত্ফুন নেছা ইসলাম, আজিমুল ইসলামের স্ত্রী নাবিলা ইসলামসহ তাদের স্বার্থসংশ্লিষ্ট আলিফ টেক্সটাইল মিলস ও বায়তুল খামুরকে ২ কোটি টাকা জরিমানা করা হয়।

বিডি ওয়েল্ডিংয়ের শেয়ার কেনার বিষয়ে জানতে চাইলে আলিফ গ্রুপের এক কর্মকর্তা বলেন, কোম্পানিটি ইন্ডাস্ট্রিয়াল অক্সিজেন ও ওয়েল্ডিং ইলেকট্রোডস উৎপাদন করে। বাজারে কোম্পানিটির পণ্যের ভালো চাহিদা রয়েছে। বতর্মানে ওয়েল্ডিং ইলেকট্রোডস ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল অক্সিজেনের বাজারে বহুজাতিক কোম্পানি লিন্ডে বিডির একক আধিপত্য রয়েছে। তবে বিডি ওয়েল্ডিং কারখানা সংস্কার করে আবার চালু করা গেলে এটি একটি ভালো বিনিয়োগ হবে বলে আমরা মনে করছি। এসব দিক বিবেচনা করেই আলিফ গ্রুপ কোম্পানিটির শেয়ার কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। শেয়ার বিক্রির অনুমোদন সংক্রান্ত সবকিছু আইসিবিই দেখছে। বিএসইসির কাছ থেকে চূড়ান্ত অনুমোদন পাওয়া ওপর শেয়ার কেনার বিষয়টি নির্ভর করছে বলে জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, লোকসান ও ঋণ পরিশোধে ব্যর্থতার একটি দুষ্টচক্রে আটকে গিয়েছিল ওয়েল্ডিং ইলেকট্রোড রড ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল গ্যাস উৎপাদক বিডি ওয়েল্ডিং। ২০১৬ সালে ব্যাংকঋণ পরিশোধের জন্য চট্টগ্রামস্থ কারখানার ২ দশমিক ৪৯ একর বন্ধকি জমি বিক্রির সিদ্ধান্ত নেয় কোম্পানির পর্ষদ। বিএসআরএম গ্রুপের কাছে কারখানার জমিটি ৩৭ কোটি ৩৫ লাখ টাকায় বিক্রি করে সাউথ ইস্ট ব্যাংকের ২২ কোটি ৫৭ লাখ টাকার ঋণ পরিশোধসহ নামজারি ফি, বিভিন্ন বিল ও কর্মচারীদের পাওনা বাবদ অর্থ বাদ দিয়ে কোম্পানির এসক্রো অ্যাকাউন্টে ৮ কোটি ৮৬ লাখ টাকা জমা হয়। এর মধ্যে ৭ কোটি টাকায় ধামরাইয়ে ২ দশমিক ১০ একর জমি কেনা হয়েছে। আর বাকি টাকা জমির উন্নয়ন, চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় যন্ত্রপাতি স্থানান্তরসহ আনুষঙ্গিক কার্যক্রমে ব্যয় হয়েছে। তবে অর্থ সংকটের কারণে কারখানায় যন্ত্রপাতি স্থাপনের জন্য প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণ করতে পারছিল না বিডি ওয়েল্ডিং।

শেয়ারবিজনেস24.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: