Nahee Aluminum
Share Business Logo
bangla fonts
facebook twitter google plus rss

জিম্বাবুয়ের টি–টোয়েন্টি–শিক্ষা


০৯ আগস্ট ২০১৫ রবিবার, ০৫:২৬  পিএম


জিম্বাবুয়ের টি–টোয়েন্টি–শিক্ষা

সফরের একমাত্র টি-টোয়েন্টি ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দাঁড়াতেই পারেনি জিম্বাবুয়ে। ৮০ রানের হারে এই ফরম্যাটে খেলার পাঠটা বেশ ভালোভাবেই পেয়ে গেছে ডেভ হোয়াটমোরের শিষ্যরা। প্রথমে ব্যাট করে ৫ উইকেটে করা নিউজিল্যান্ডের ১৯৮ রানের জবাবে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ৮ উইকেটে ১১৮ রান। টসে জিতে নিউজিল্যান্ডকে কেন ব্যাটিংয়ে পাঠিয়েছিলেন এলটন চিগুম্বুরা। ম্যাচ শেষে সেটাই বোধ হয় ভাবতে বসেছেন তিনি। প্রথম থেকেই জিম্বাবুয়ে বোলারদের অসহায়ত্ব ফুটে ওঠে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের সামনে। অভিষিক্ত জর্জ ওয়াকারের অনবদ্য ৬২ রানের পাশাপাশি ছিল মার্টিন গাপটিল (৩৩), কেন উইলিয়ামসন (২০), লুক রনচি (২৯), কলিন মুনরো (২৩) আর নাথান ম্যাককালামের (১৮) ছোট অথচ কিছু কার্যকর ইনিংস। এই ইনিংসগুলোর ওপর ভর করেই নির্ধারিত ২০ ওভারে সংগ্রহটাকে ১৯৮-তে নিয়ে যায় কিউইরা। খরচে জিম্বাবুইয়ান বোলারদের মধ্যে উইকেট তোলার দিক দিয়ে সবচেয়ে সফল ছিলেন শন উইলিয়ামস। তিনি ২৮ রানের বিনিময়ে তুলে নেন তিন নিউজিল্যান্ড ব্যাটসম্যানের উইকেট। এ ছাড়া তাউরাই মুজারাবানি আর গ্রায়েম ক্রেমার যথাক্রমে ৩৪ ও ২৮ রান দিয়ে নিয়েছেন একটি করে উইকেট। ১৯৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামা জিম্বাবুয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ধারে-কাছেও নিজেদের নিতে পারেনি। ক্রেইগ অরভিন অবশ্য ছিলেন ব্যতিক্রম। তিনি ৪২ রান করেন। কিন্তু ৪৬ বলে করা তাঁর ইনিংসটি টি-টোয়েন্টি উপযোগী না হওয়ায় উপকৃত হয়নি তাঁর দল। অরভিন ছাড়া শন উইলিয়ামসনের ১৬ আর রেগিস চাকাভার ১৩ ছাড়া জিম্বাবুয়ে লাইন আপে বলার মতো কোনো স্কোরই নেই। জিম্বাবুয়ে ব্যাটসম্যানদের নখদন্তহীন বানিয়ে দিয়েছিলেন কিউই বোলাররা। আডাম মিলনে মাত্র ১০ রান দিয়ে নেন ২ উইকেট। মিচেল ম্যাকক্লেনাঘানের শিকারও দুটি উইকেট। এ ছাড়া জেমস নিশাম, নাথান ম্যাককালাম, ইশ সোধি ও গ্রান্ট এলিয়ট একটি করে উইকেট নিয়েছেন যথাক্রমে ২১,২৫, ১৫ ও ৭ রান দিয়ে। অভিষেকেই দারুণ ব্যাটিংয়ের স্বীকৃতি ওয়াকার পেয়েছেন ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার পেয়ে। সূত্র: এএফপি।

শেয়ারবিজনেস24.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: