Sahre Business Logo
bangla fonts
facebook twitter google plus rss

অফশোর ঋণে ১০৩ কোটি টাকা খেলাপি


২৫ নভেম্বর ২০১৬ শুক্রবার, ০৬:৫৩  পিএম

শেয়ার বিজনেস24.কম


অফশোর ঋণে ১০৩ কোটি টাকা খেলাপি

কম সুদে ঋণ পেতে অফশোর ব্যাংকিংয়ের দিকে ঝুঁকছে করপোরেট গ্রাহকেরা। ফলে গত সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অফশোর ইউনিটের ঋণের পরিমাণ ৩৮ হাজার ৪৯৫ কোটি টাকা। এর মধ্যে খেলাপি হয়ে গেছে তিন ব্যাংকের ১০৩ কোটি টাকা। বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, গত সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অফশোর ইউনিটের মাধ্যমে ৩৮ হাজার ৪৯৫ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঋণ বিতরণ করেছে হংকং সাংহাই ব্যাংকিং করপোরেশন। ব্যাংকটির মাধ্যমে ৮ হাজার ৩৮৯ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের মাধ্যমে ৪ হাজার ৯১৬ কোটি টাকা, ইসলামী ব্যাংকের মাধ্যমে ২ হাজার ৬৭৪ কোটি টাকা, এবি ব্যাংকের মাধ্যমে ১ হাজার ১৫৪ কোটি টাকা, ব্যাংক এশিয়ার মাধ্যমে ১ হাজার ১৩৭ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। এ ছাড়া ব্র্যাক ব্যাংকের মাধ্যমে ২ হাজার ১২৯ কোটি টাকা, ইস্টার্ণ ব্যাংকের মাধ্যমে ২ হাজার ৪১২ কোটি টাকা, প্রাইম ব্যাংকের মাধ্যমে ১ হাজার ৭৫৯ কোটি টাকা, দ্য সিটি ব্যাংকের মাধ্যমে ১ হাজার ৮৯১ কোটি টাকা, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের মাধ্যমে ১ হাজার ২৫৯ কোটি টাকা, স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার মাধ্যমে ৯১৫ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ করা হয়েছে।

প্রতিবেদনের তথ্যমতে, সেপ্টেম্বর শেষে অফশোর ইউনিটে স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার ৭ কোটি ৭০ লাখ টাকা, প্রাইম ব্যাংকের ৯৪ কোটি ৭৪ লাখ টাকা ও ঢাকা ব্যাংকের ৯৭ লাখ টাকা খেলাপি হয়ে গেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী গত জুন পর্যন্ত অফশোর ইউনিটে ঋণ ছিল ৩৮ হাজার ৮৭ কোটি টাকা। মার্চ  শেষে অফশোর ব্যাংকিংয়ে ঋণের পরিমাণ ছিল ৩৩ হাজার ৩১১ কোটি টাকা।

অফশোর ব্যাংকিং হলো ব্যাংকের অভ্যন্তরে পৃথক ব্যাংকিং। বিদেশি কোম্পানিকে ঋণ প্রদান ও বিদেশি উৎস থেকে আমানত সংগ্রহের সুযোগ রয়েছে অফশোর ব্যাংকিংয়ে। স্থানীয় মুদ্রার পরিবর্তে বৈদেশিক মুদ্রায় হিসাব হয় অফশোর ব্যাংকিংয়ে। ব্যাংকের কোনো নিয়ম-নীতিমালা অফশোর ব্যাংকিংয়ে প্রয়োগ হয় না। কেবল মুনাফা ও লোকসানের হিসাব যোগ হয় ব্যাংকের মূল হিসাবে।

সাম্প্রতিক সময়ে বিশ্বব্যাপী অফশোর ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে অর্থ পাচারের বিষয়টি এখন ব্যাপকভাবে আলোচিত হচ্ছে। বাংলাদেশ ব্যাংক ১৯৮৫ সালে ব্যাংকগুলোর অফশোর ব্যাংকিং পরিচালনার জন্য একটি নীতিমালা জারি করে। এরপর ৩০ বছর পেরিয়ে গেলেও অফশোর ব্যাংকিংয়ের জন্য হয়নি পূর্ণাঙ্গ কোনো নীতিমালা। দেশে কার্যরত ৫৭ ব্যাংকের মধ্যে এখন ৫১টি অফশোর ব্যাংকিংয়ের অনুমোদন নিয়েছে ও কার্যক্রমে আছে ৩৫টি।

শেয়ারবিজনেস24.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: