Sahre Business Logo
bangla fonts
facebook twitter google plus rss

২০টি ওষুধের দাম কমাল বেক্সিমকো ইনসেপ্টা


২১ নভেম্বর ২০১৬ সোমবার, ০৯:৫৮  পিএম

শেয়ার বিজনেস24.কম


২০টি ওষুধের দাম কমাল বেক্সিমকো ইনসেপ্টা

দীর্ঘদিন লাগামহীন দাম বৃদ্ধির পর অবশেষে কয়েকটি ওষুধের দাম কমিয়েছে দেশের বড় দুটি কোম্পানি। ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরে এ-বিষয়ক অনুমোদনের জন্য প্রস্তাবনা পাঠিয়েছে কোম্পানি দুটি। এর মধ্যে একটি কোম্পানির আটটি ওষুধের দাম কমানোর অনুমোদন দিয়েছে ঔষধ প্রশাসন। আরেক কোম্পানির ১২টি ওষুধের দাম কমানোর প্রস্তাবনাও দু-একদিনের মধ্যে অনুমোদন পাচ্ছে বলে জানা গেছে।

ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যাল ১২টি ও ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যাল আটটিসহ মোট ২০টি ওষুধের দাম কমিয়েছে। ইনসেপ্টা ফার্মার হাইপারটেনশনের অ্যামলোসারটান ৫/৮০ মিলিগ্রামের (এমজি) প্রতিটি ট্যাবলেটের দাম আগে ছিল ৯ টাকা। বর্তমানে তা ৬ টাকা করা হয়েছে। একইভাবে অ্যামলোসারটান ৫/১৬০ এমজির প্রতিটি ট্যাবলেটের দাম ১৬ টাকা থেকে কমিয়ে ৮ ও অ্যামলোসারটান ১০/১৬০ এমজির প্রতিটির দাম ১৬ থেকে কমিয়ে ৯ টাকা করা হয়েছে। এছাড়া হাইপারটেনশন, ডায়াবেটিস ও কিডনি রোগে ব্যবহূত ৮০ এমজির প্রতিটি ভ্যালসারটিল ও ভ্যালসারটিল প্লাস ট্যাবলেটের দাম ছিল আগে ৯ টাকা। বর্তমানে তা কমিয়ে ৬ টাকা করা হয়েছে। একইভাবে ১৬০ এমজির ভ্যালসারটিল ও ভ্যালসারটিল প্লাস ট্যাবলেট প্রতিটির দাম ১৬ থেকে কমিয়ে ৮ টাকা করা হয়েছে। এছাড়া মূত্রাশয় রোগের ওষুধ ইনোফস ট্যাবলেট ৪০০ এমজির দাম ৪৫ থেকে কমিয়ে ৩০ টাকা করা হয়েছে।

ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের পরিচালক রুহুল আমিন বলেন, বেক্সিমকো ফার্মা ও ইনসেপ্টা ২০টি ওষুধের দাম কমানোর জন্য অনুমোদন চেয়ে আবেদন করেছে। ইনসেপ্টার আবেদন এরই মধ্যে মঞ্জুর হয়েছে। দু-একদিনের মধ্যে বেক্সিমকো ফার্মাকেও অনুমোদন দেয়া হবে। একই সঙ্গে দাম কমানোর পর বাজারের সঙ্গে সমন্বয় করতে কোম্পানিগুলোকে নির্দেশনা দেয়া হবে।

এদিকে বেক্সিকো ফার্মা ট্রায়োভিক্স ট্যাবলেট প্রতিটির মূল্য ৭০ থেকে কমিয়ে ৬০ টাকা করার প্রস্তাব করেছে। এছাড়া ডায়াভিক্স ট্যাবলেটের দাম ৪৫ থেকে কমিয়ে ৪০, এভিফেনজ ট্যাবলেট ২০০ থেকে কমিয়ে ১৪০, এভিলেম ট্যাবলেট ২৫ থেকে কমিয়ে ২০ টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। ডায়াবেটিসের ওষুধ ৫ এমজির ট্রানেটা ট্যাবলেটের দাম ২৫ থেকে কমিয়ে ১৮ টাকা করা হয়েছে। একইভাবে ৫০ এমজির গ্লিপিটার দাম ১৬ থেকে ১৩, ১০০ এমজির গ্লিপিটা ৩০ থেকে ২৫, ৫০/৫০০ এমজির গ্লিপিটা এম ১৭ থেকে ১৪, ৫০/১০০০ এমজির গ্লিপিটা এম ১৯ থেকে ১৬, ১০০ এমজির লেবিটা ৬ টাকা ২ পয়সা থেকে সাড়ে ৫, ২০০ এমজির লেবিটা ১০ টাকা ৪ পয়সা থেকে ৯ টাকা ও রেসিটোনের দাম ৬ টাকা ২ পয়সা থেকে কমিয়ে সাড়ে ৫ টাকা করা হয়েছে।

ওষুধের দাম কমানোর ব্যাপারে বেক্সিমকো ফার্মার এক কর্মকর্তা জানান, সম্প্রতি বেশকিছু ওষুধের মূল্য বৃদ্ধি পায়। এতে গণমাধ্যমে ব্যাপক লেখালেখি হয়। এ কারণে সরকার চাচ্ছে বাজারে ওষুধের দাম স্থিতিশীল থাকুক। এ বিষয়ে সরকার কোম্পানিগুলোকে দাম কমানোর অনুরোধ করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে অধিক লাভ হয় এমন কিছু ওষুধের দাম কমানো হয়েছে।

মূল্যহ্রাসকৃত ওষুধগুলোর দাম কবে থেকে কার্যকর হবে— এমন প্রশ্নের জবাবে বেক্সিমকো ফার্মার প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা রাব্বুর রেজা বলেন, ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর থেকে অনুমোদন পাওয়ার পর কেমিস্ট অ্যান্ড ড্রাগিস্ট সমিতিকে চিঠি দেয়া হবে। এ অবস্থায় খুচরা বিক্রেতারা যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সেদিকেও নজর রাখা হবে। বাজারে কী পরিমাণ ওষুধ রয়েছে, পর্যবেক্ষণ করে পরে তা সমন্বয় করা হবে।

শেয়ারবিজনেস24.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: