Runner Automobiles
Sea Pearl Beach Resort & SPA Ltd
Share Business Logo
bangla fonts
facebook twitter google plus rss

বিনিয়োগকারীদের মোহ কমছে মিউচুয়াল ফান্ডে


৩১ জুলাই ২০১৯ বুধবার, ০২:০১  পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক


বিনিয়োগকারীদের মোহ কমছে মিউচুয়াল ফান্ডে

লভ্যাংশ ঘোষণার হার দেখে মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগে মোহ কাটতে শুরু করেছে বিনিয়োগকারীদের। সবাই তাদের হাতে থাকা ইউনিট ফান্ড বিক্রি করতে শুরু করেছেন। এতে মিউচুয়াল ফান্ড খাতে দরপতন মাত্রা ছাড়িয়েছে। চার মেয়াদি মিউচুয়াল ফান্ডের ৩ শতাংশ হারে নগদ লভ্যাংশ ঘোষণার খবরে গতকাল মঙ্গলবার অন্তত ১১ ফান্ড দিনের সার্কিট ব্রেকার নির্ধারিত সর্বনিম্ন দরে কেনাবেচা হয়েছে। শেষ পর্যন্ত তালিকাভুক্ত ৩৭ মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে ৩৪টি দর হারায়। গড়ে সব ফান্ডের দর সাড়ে ৫ শতাংশের ওপর কমেছে।

মিউচুয়াল ফান্ডের এমন দরপতনের দিনে অন্য সব খাতের অধিকাংশ শেয়ারের দরও কমেছে। প্রকৌশল, ওষুধ ও রসায়ন, বস্ত্র, বীমাসহ ১৫ খাতের প্রায় সব কোম্পানির শেয়ার দর হারিয়েছে। মিশ্রধারায় ছিল ব্যাংক, চামড়া ও চামড়জাত পণ্য এবং পাট খাত। লেনদেন শেষে দেখা গেছে, গতকাল প্রধান শেয়ারবাজার ডিএসইতে ৬৪ শেয়ার ও ফান্ডের দর বৃদ্ধির বিপরীতে ২৬৮টি দর হারিয়েছে এবং অপরিবর্তিত ছিল ২০টির দর। লেনদেন হওয়া ৩৫২ শেয়ার ও ফান্ডের মধ্যে ১৮ শতাংশের দর বেড়েছে এবং দর হারিয়েছে ৭৬ শতাংশ শেয়ার। দ্বিতীয় শেয়ারবাজার সিএসইতেও ছিল প্রায় একই চিত্র।

অধিকাংশ শেয়ার দর হারানোয় প্রধান সূচক ডিএসইএক্স প্রায় ৩৬ পয়েন্ট হারিয়ে ৫১২৫ পয়েন্টে নেমেছে। দিনব্যাপী দুই বাজারে কেনাবেচা হয়েছে ৪৫০ কোটি টাকা মূল্যের শেয়ার। এর মধ্যে ডিএসইতে কেনাবেচা হয় ৪২৯ কোটি ৬৯ লাখ টাকার শেয়ার।

ডিএসইর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, সম্পদ ব্যবস্থাপক কোম্পানি রেস-এর ব্যবস্থাপনাধীন চারটি মেয়াদি মিউচুয়াল ফান্ডের ট্রাস্টি প্রতিটির জন্য ৩ শতাংশ হারে নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করে। ফান্ডগুলো হলো- এবি ব্যাংক প্রথম, ইবিএল এনআরবি, পিএইচপি প্রথম এবং পপুলার লাইফ প্রথম মিউচুয়াল ফান্ড। এদিকে, গত সোমবার আগের বছরের চেয়ে বেশ কম লভ্যাংশ ঘোষণার (সাড়ে ৭ শতাংশ নগদ) পর এশিয়ান টাইগার সন্ধানী লাইফ গ্রোথ ফান্ডের দরপতন হয়েছে প্রায় ১৪ শতাংশ, ছিল দরপতনের শীর্ষে। তবে ১২ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণার পর সাউথইস্ট ব্যাংক প্রথম ফান্ডের দর অপরিবর্তিত ছিল এবং ন্যাশনাল লাইফ প্রথম ফান্ডের ১৩ শতাংশ নগদ লভ্যাংশের পর দর বেড়েছে পৌনে ১ শতাংশ।

এদিকে, টানা দ্বিতীয় দিনে বিডি ওয়েল্ডিংয়ের শেয়ার সার্কিট ব্রেকারের সর্বোচ্চ দর ১৭ টাকা ৪০ পয়সায় কেনাবেচা হয়েছে। গতকাল দিনের লেনদেনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পাঁচ লাখেরও বেশি শেয়ার কেনার আদেশ থাকলেও পুরো সময়ে কেনাবেচা হয়েছে মাত্র ৯ হাজার ১৩৩টি। বন্ধ ও রুগ্‌ণ এ কোম্পানির মালিকানার বড় অংশ রাষ্ট্রায়ত্ত বিনিয়োগ সংস্থা আইসিবির কাছ থেকে কিনে নিতে আলিফ গ্রুপের চুক্তি করার খবরে দর বাড়ছে শেয়ারটির।

সার্বিক নিম্নমুখী ধারার মধ্যে গতকাল আরও সাত কোম্পানির শেয়ার সার্কিট ব্রেকারের সর্বোচ্চ দরে কেনাবেচা হয়েছে। এগুলো হলো- ঢাকা ডাইং, মুন্নু স্টাফেলার্স, স্টাইল ক্রাফট, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ, ইস্টার্ন লুব্রিকেন্টস, ইনটেক অনলাইন ও খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং। এর মধ্যে ইস্টার্ন লুব্রিকেন্টস লেনদেনের শেষাংশে দর হারায়।

মুনাফা বেড়েছে সিটি ব্যাংকের :চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে সিটি ব্যাংকের শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) দাঁড়িয়েছে ১ টাকা ৯১ পয়সা, যা ২০১৮ সালের একই মেয়াদে ছিল ১ টাকা ৪৪ পয়সা। এ সময়ে ব্যাংকটির কর-পরবর্তী মুনাফা দাঁড়িয়েছে ১৮৪ কোটি ৫৬ লাখ টাকা, যা গত বছরের একই সময়ে যা ছিল ১৩৮ কোটি ৯৬ লাখ টাকা।

রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে গত সোমবার অর্ধবার্ষিক মুনাফা প্রকাশ অনুষ্ঠানে সিটি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসরুর আরেফিন ব্যাংকের কৌশলগত অবস্থান এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথা জানান। ডিএমডি ও সিএফও মাহবুবুর রহমান অর্জিত মুনাফার নানা দিক তুলে ধরেন।

শেয়ারবিজনেস24.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: