Runner Automobiles
Sea Pearl Beach Resort & SPA Ltd
Share Business Logo
bangla fonts
facebook twitter google plus rss

ব্যাংকগুলোকে অর্থযোগান পুঁজিবাজারের জন্য ইতিবাচক : বিএমবিএ


১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ রবিবার, ০২:৪৫  পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক


ব্যাংকগুলোকে অর্থযোগান পুঁজিবাজারের জন্য ইতিবাচক : বিএমবিএ

 

বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগের জন্য ব্যাংকগুলোকে ২০০ কোটি টাকা করে ‘বিশেষ তহবিল’ গঠনের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এটাকে পুঁজিবাজারের জন্য ইতিবাচক পদক্ষেপ বলে অভিহিত করেছে বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিএমবিএ)। এ সহায়তা কোনো ভর্তুকি বা দান নয়। যা নিয়ে অপপ্রচারের কোনো যৌক্তিকতা নেই।

রাজধানীর একটি হোটেলে গত শনিবার বর্তমান পুঁজিবাজার পরিস্থিতি নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন বিএমবিএ সভাপতি মো. ছায়েদুর রহমান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন—সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক রিয়াদ মতিন, ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. মনিরুজ্জামান, নির্বাহী সদস্য মাহবুব এইচ মজুমদার, নুর আহামেদ, মো. হামদুল ইসলাম প্রমুখ।


ছায়েদুর রহমান বলেন, সচেতন বিনিয়োগ অর্থনৈতিক উন্নতির প্রধান শর্ত। সচেতন ও সঠিক বিনিয়োগের জন্য বিনিয়োগকারীদের সচেতন করা আমাদের প্রধান লক্ষ্য। সেই প্রেক্ষাপটে বিনিয়োগ শিক্ষা প্রসারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে। সরকারের নীতি নির্ধারণী পক্ষসমূহের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা ও সমন্বয় সাধন করা এবং প্রয়োজনীয় আইনি পরিবর্তন ও পরিবর্ধনের সুপারিশ করা হবে। পুঁজিবাজারের সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের সঙ্গে সমন্বয় সাপেক্ষে বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ সমুন্নত রাখা হবে। ভালো উদ্যোক্তাদের প্রতি যথাযথ সম্মান দেখানো হবে। কারণ, ভালো উদ্যোক্তা ব্যতীত শেয়ারবাজার তথা অর্থনৈতিক উন্নতি অসম্ভব।
পুঁজিবাজার উন্নয়নে আটটি বিষয়ের ওপর গুরুত্বারোপ করেছে বিএমবিএ । এর মধ্যে রয়েছে-

১. সচেতন বিনিয়োগ অর্থনৈতিক উন্নতির প্রধান শর্ত। সচেতন ও সঠিক বিনিয়োগের জন্য বিনিয়োগকারীদের সচেতন করা আমাদের প্রধান লক্ষ্য। সেই প্রেক্ষাপটে বিনিয়োগ শিক্ষা প্রসারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া। ২. সরকারের নীতি নির্ধারণী পক্ষসমূহের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা ও সমন্বয় সাধন করা। প্রয়োজনীয় আইনি পরিবর্তন ও পরিবর্ধনের সুপারিশ করা। ৩. পুঁজিবাজারের সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষের সঙ্গে সমন্বয় সাপেক্ষে বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ সমুন্নত রাখা। ৪. ভালো উদ্যোক্তাদের প্রতি যথাযথ সম্মান দেখানো। কারণ, ভালো উদ্যোক্তা ব্যতিত পুঁজিবাজার তথা অর্থনৈতিক উন্নতি অসম্ভব। ৫. শেয়ারবাজারের আকার বৃদ্ধিতে গুনগত মান সমৃদ্ধ বৃহৎ শিল্প ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে তালিকাভুক্তির বিষয়ে সংশ্লিষ্ট পক্ষের সঙ্গে সমন্বয়ের চেষ্টা করা। ৬. পুঁজিবাজারের সার্বিক মূল্যায়নের জন্য সকল অংশীজনের সমন্বয়ে প্রতি ৬ মাসে ১টি বৃহৎ সেমিনার করার উদ্যোগ নেওয়া। ৭. আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত/প্রচলিত অথচ আমাদের পুঁজিবাজারে অনুপস্থিত সেই সকল বিষয়ে অংশীজনের সঙ্গে আলোচনা ও সমন্বয় করা এবং প্রয়োজনীয় আইনের জন্য সুপারিশ করা। ৮. বিদেশি বিনিয়োগকারীদের সমন্বয়ে বছরে ১টি আন্তর্জাতিক সেমিনার করা।

দেশের পুঁজিবাজারে টানা দরপতনের মধ্যে বিএমবিএর সভাপতি ছায়েদুর রহমানের নেতৃত্বে সম্প্রতি বাজার মধ্যস্থতাকারীদের একটি দল সরকারের কাছে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের জন্য একটি তহবিল গঠনের আবেদন করেন। মূলত তাদের দাবির প্রেক্ষিতে গত সোমবার বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ব্যাংকগুলোকে বিশেষ তহবিল গঠনের সুযোগ দেয়া হয়। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা অনুযায়ী, পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের জন্য প্রত্যেক ব্যাংক ২০০ কোটি টাকার বিশেষ তহবিল গঠন করতে পারবে। নিজস্ব উৎস অথবা ট্রেজারি বিল বন্ডের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ব্যাংকগুলো এ তহবিলের অর্থ সংগ্রহ করতে পারবে। বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ৫ শতাংশ সুদে এ তহবিলের অর্থ সংগ্রহ করতে পারবে ব্যাংকগুলো, যা পরিশোধে সময় পাবে পাঁচ বছর। আর ব্যাংকগুলো সর্বোচ্চ ৭ শতাংশ সুদে এ তহবিল থেকে ঋণ দিতে পারবে।

বিএমবিএর সভাপতি ছায়েদুর রহমান আরো বলেন, সাম্প্রতিক অবস্থার প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুঁজিবাজার উন্নয়নের উদ্যোগ নেন। যার প্রেক্ষিতে পুঁজিবাজার উন্নয়নের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনা মোতাবেক বাংলাদেশ ব্যাংক এক যুগান্তকারী নীতি সহায়তার সার্কুলার দিয়েছে। যা ইতোমধ্যে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ ও সাহস জোগাচ্ছে।

 

শেয়ারবিজনেস24.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: