Runner Automobiles
Sea Pearl Beach Resort & SPA Ltd
Share Business Logo
bangla fonts
facebook twitter google plus rss

মুনাফা করলেই লভ্যাংশ দিতে পারবে লোকসানি কোম্পানিও


০৩ অক্টোবর ২০১৯ বৃহস্পতিবার, ০২:০৭  পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক


মুনাফা করলেই লভ্যাংশ দিতে পারবে লোকসানি কোম্পানিও

কোনো কোম্পানির যতই পুঞ্জীভূত লোকসান থাকুক না কেন, কোনো এক বছর মুনাফা করলে ওই বছর মুনাফা থেকে নগদ লভ্যাংশ দিতে পারবে। গত বুধবার শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি এমন ঘোষণা দিয়েছে।

কমিশন বলেছে, `অন্যান্য সিকিউরিটিজ আইন পরিপালন করে, স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলো পুঞ্জীভূত লোকসান থাকা সত্ত্বেও সংশ্নিষ্ট বছরের অর্জিত মুনাফা থেকে নগদ লভ্যাংশ সুপারিশ, ঘোষণা ও বিতরণ করতে পারবে।` বিনিয়োগকারী ও কিছু কোম্পানির আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিষয়টি স্পষ্ট করা হয়েছে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে বিএসইসি। তবে কোন কোম্পানি আবেদন করেছে, তা জানায়নি।

গত বছরের ৮ আগস্ট জারি করা `ফাইন্যান্সিয়াল রিপোর্টিং অ্যান্ড ডিসক্লোজার` শীর্ষক নির্দেশনায় বলা হয়েছিল, কোনো কোম্পানি এমন কোনো লভ্যাংশ ঘোষণা করতে পারবে না, যার ফলে ওই কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন বা পুঞ্জীভূত মুনাফা (রিটেইন্ড আর্নিংস) ঋণাত্মক হয় অর্থাৎ পুঞ্জীভূত লোকসান তৈরি হয়।

গত বছরের এ নির্দেশনা অনুযায়ী, কোনো কোম্পানি সংশ্নিষ্ট বছরের মুনাফা এবং পুঞ্জীভূত মুনাফার মোট অঙ্কের তুলনায় বেশি মুনাফা দিতে পারে না। কিন্তু পুঞ্জীভূত লোকসানে থাকা কোনো কোম্পানি কোনো বছরে সমুদয় লোকসানের তুলনায় কম মুনাফা করলে এবং ওই মুনাফার আংশিক বা পুরোটা লভ্যাংশ আকারে বিতরণ করতে পারবে কি-না, তা স্পষ্ট ছিল না।

বিএসইসির গতকালের ঘোষণায় জেড ক্যাটাগরির কোম্পানির আগে যতই লোকসান থাকুক না কেন, কোনো বছর সামান্য মুনাফা করেও ওই বছর লভ্যাংশ দিতে পারবে। এর মাধ্যমে বছরের পর বছর লোকসানে থাকা কোম্পানি তালিকাচ্যুত হওয়ার শঙ্কা থেকে রক্ষা পাবে। তালিকাভুক্তি প্রবিধান অনুযায়ী কোনো কোম্পানি টানা পাঁচ বছর লভ্যাংশ দিতে ব্যর্থ হলে স্টক এক্সচেঞ্জ তালিকাচ্যুত করতে পারে। গত বছর এ কারণে কিছু কোম্পানিকে তালিকাচ্যুতির নীতিগত সিদ্ধান্ত নেয় ডিএসই। কিন্তু আইনি ক্ষমতা থাকার পরও নিজে সিদ্ধান্ত না নিয়ে তারা নিয়ন্ত্রক সংস্থার দ্বারস্থ হয়। প্রায় এক বছর হতে চললেও বিএসইসি এ বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত জানায়নি। চলতি বছর লভ্যাংশ ঘোষণার সময় ঘনিয়ে আসার প্রেক্ষাপটে বিএসইসি এখন স্পষ্টীকরণ করল।

অর্থনীতিবিদ ও শেয়ারবাজার বিশেষজ্ঞ আবু আহমেদ বলেন, এতে সংশ্নিষ্ট কোম্পানি ক্ষতি পুষিয়ে ওঠার সুযোগ পাবে না। বিশেষত লোকসানে থাকা যেসব কোম্পানির উদ্যোক্তা-পরিচালকরা শেয়ার ব্যবসা করছেন, তারা কমিশনের দেওয়া এ সুযোগ লুফে নেবেন। এতে দীর্ঘমেয়াদে ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরাই ক্ষতিগ্রস্ত হবেন।

শেয়ারবিজনেস24.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: