JAC EnergyPac Power
Sea Pearl Beach Resort & SPA Ltd
Share Business Logo
bangla fonts
facebook twitter google plus rss

ওয়েস্টার্ন মেরিনের রাইট শেয়ারের আবেদন বাতিল


১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ মঙ্গলবার, ০৯:১২  এএম

নিজস্ব প্রতিবেদক

শেয়ার বিজনেস24.কম


ওয়েস্টার্ন মেরিনের রাইট শেয়ারের আবেদন বাতিল

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত প্রকৌশল খাতের কোম্পানি ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ডের রাইট শেয়ার ইস্যুর আবেদন বাতিল করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। রাইট ইস্যু সংক্রান্ত বিভিন্ন ঘাটতির বিষয়ে কমিশনের জবাব না দিয়ে একাধিকবার সময় চাওয়ার কারণে কোম্পানিটির আবেদন বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। 

১৪ সেপ্টেম্বর সোমবার এ বিষয়ে কমিশনের পক্ষ থেকে কোম্পানির অনুকূলে চিঠি ইস্যু করা হয়েছে।

 

বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, রাইট ইস্যু সংক্রান্ত বিভিন্ন ডিফিসিয়েন্সির বিষয়ে কমিশনের পক্ষ থেকে কোয়ারি করা হলেও কোম্পানিটি সেগুলোর জবাব না দিয়ে বার বার সময় বাড়ানোর আবেদন করেছে। এ কারণে কমিশন বিষয়টি ঝুলিয়ে না রেখে রাইট শেয়ার ইস্যুর আবেদন বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

 

২০১৭ সালে নভেম্বরে বিশেষ ধরনের জাহাজ নির্মাণের জন্য সক্ষমতা সম্প্রসারণে ৫০০ কোটি টাকা বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নেয় ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড। এ প্রকল্পে অর্থসংস্থানের জন্য ১.২৫ আর:১ অনুপাতে (বিদ্যমান একটি শেয়ারের বিপরীতে ১ দশমিক ২৫টি শেয়ার) রাইট শেয়ার ইস্যুর সিদ্ধান্ত নেয় কোম্পানিটির পর্ষদ। এক্ষেত্রে ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের সঙ্গে শেয়ার প্রতি ১০ টাকা প্রিমিয়াম নেয়ার ঘোষণা দেয়া হয়। পরবর্তীতে ২০১৮ সালের জুলাইয়ে রাইট শেয়ার ইস্যুর প্রস্তাব সংশোধন করে ১আর:১ অনুপাতে (বিদ্যমান একটি শেয়ারের বিপরীতে একটি রাইট শেয়ার) ৫ টাকা প্রিমিয়ামে রাইট শেয়ার ইস্যুর সিদ্ধান্ত নেয় ওয়েস্টার্ন মেরিন। অবশ্য এর দুইদিন পর কোম্পানিটি সংশোধনীর মাধ্যমে জানায় যে তাদের পর্ষদ রাইট শেয়ার ইস্যুর প্রস্তাবে আংশিক পরিবর্তন এনেছে। পরিবর্তিত সিদ্ধান্ত অনুসারে ১আর:২ অনুপাতে (বিদ্যমান দুইটি শেয়ারের বিপরীতে একটি রাইট শেয়ার) ৫ টাকা প্রিমিয়ামসহ শেয়ার প্রতি ১৫ টাকায় রাইট শেয়ার ইস্যু করার কথা জানানো হয়। সর্বশেষ গত বছরের ফেব্র“য়ারিতে আরেক দফায় রাইট শেয়ার ইস্যুর প্রস্তাবে পরিবর্তন আনে কোম্পানিটি। এবার কোনো ধরনের প্রিমিয়াম ছাড়াই ১০ টাকা অভিহিতমূল্যে ১আর:২ অনুপাতে ৯ কোটি ৯৭ লাখ ৬৮ হাজার ৩০১টি সাধারণ শেয়ার ইস্যুর মাধ্যমে বিদ্যমান বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ৯৯ কোটি ৭৬ লাখ ৮৩ হাজার ১০ টাকা সংগ্রহের ঘোষণা দেয়া হয়।

 

৩০ জুন সমাপ্ত ২০১৯ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ১৫ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দিয়েছে ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড। সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ৭৫ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ২ টাকা ৭১ পয়সা। 

 

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সোমবার ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড শেয়ারের সর্বশেষ দর ছিল ১৩ টাকা। সমাপনী দর ছিল ১২ টাকা ৯০ পয়সা। গত এক বছরে শেয়ারটির দর ৯ টাকা ৬০ পয়সা থেকে ১৬ টাকা ৩০ পয়সার মধ্যে ওঠানামা করেছে।

 

২০১৪ সালে শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত কোম্পানিটির অনুমোদিত মূলধন ৬০০ কোটি টাকা। পরিশোধিত মূলধন ২২৯ কোটি ৪৬ লাখ টাকা। রিজার্ভে রয়েছে ২৮৮ কোটি ৯৩ লাখ টাকা। কোম্পানিটির মোট শেয়ার সংখ্যা ২২ কোটি ৯৪ লাখ ৬৭ হাজার ৯৪। এর মধ্যে ৩০ দশমিক শূন্য ১ শতাংশ উদ্যোক্তা পরিচালক, ১৬ দশমিক ৮৫ শতাংশ প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী ও বাকি ৫৩ দশমিক ১৪ শতাংশ শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে রয়েছে।

শেয়ারবিজনেস24.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: