JAC EnergyPac Power
Crystal Life Insurance
Share Business Logo
bangla fonts
facebook twitter google plus rss

বিএসআরএমের দুই কোম্পানি একীভূত হচ্ছে


২৩ জানুয়ারি ২০২১ শনিবার, ০২:৪৬  পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক

শেয়ার বিজনেস24.কম


বিএসআরএমের দুই কোম্পানি একীভূত হচ্ছে

বিএসআরএম গ্রুপের অতালিকাভুক্ত কোম্পানি বিএসআরএম স্টিল মিলস লিমিটেড ও তালিকাভুক্ত প্রকৌশল খাতের কোম্পানি বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস (বিএসআরএম) লিমিটেড একীভূত হওয়ার চূড়ান্ত পর্যায়ে উপনীত হয়েছে। আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে কোম্পানি দুটি একীভূত হয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করবে। সম্প্রতি কোম্পানি দুটির পরিচালনা পর্ষদের সভায় এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে বিএসআরএম লিমিটেড ও বিএসআরএম স্টিল মিলস লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ একীভূতকরণের সিদ্ধান্ত নেয়। সিদ্ধান্ত অনুসারে, বিএসআরএম স্টিল মিলস লিমিটেড তার মূল কোম্পানি বিএসআরএম লিমিটেডের সঙ্গে একীভূত হবে। পর্ষদের এ সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে সম্মতি চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করা হয়। হাইকোর্ট কোম্পানি দুটিকে একীভূত হওয়ার প্রাথমিক অনুমতি দেন এবং শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদন নিতে বলেন। পরবর্তী সময়ে বিশেষ সাধারণ সভায় (ইজিএম) শেয়ারহোল্ডারদের সম্মতি নেয় বিএসআরএম লিমিটেড। এর ধারাবাহিকতায় গত ১৫ ডিসেম্বর কোম্পানি দুটির একীভূতকরণের বিষয়ে চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়ে আদেশ জারি করেন হাইকোর্ট। সেই আদেশ অনুসারে ১ ফেব্রুয়ারি থেকে এক হয়ে কার্যক্রম পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কোম্পানি দুটির পর্ষদ।

বিএসআরএম স্টিল মিলসের ৪৪ দশমিক ৯৭ শতাংশ শেয়ারের মালিক বিএসআরএম লিমিটেড। বাকি ৫৫ দশমিক শূন্য ৩ শতাংশ মালিকানার বিপরীতে শেয়ার ইস্যু করবে বিএসআরএম লিমিটেড।

এর আগে ২০১৭ সালে বিএসআরএম গ্রুপের আরেক তালিকাভুক্ত কোম্পানি বিএসআরএম স্টিল মিলস লিমিটেডের সঙ্গে বিএসআরএম আয়রন অ্যান্ড স্টিল কোম্পানি লিমিটেডকে একীভূত করা হয়।

সর্বশেষ অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুসারে, চলতি হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) বিএসআরএম লিমিটেডের সম্মিলিত শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৪২ পয়সা, আগের হিসাব বছরের একই সময়ে যা ছিল ১ টাকা ২ পয়সা। ৩০ সেপ্টেম্বর প্রতিষ্ঠানটির সম্মিলিত শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ১০১ টাকা ৩৩ পয়সা।

৩০ জুন সমাপ্ত ২০২০ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ১৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে বিএসআরএম লিমিটেড। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির সম্মিলিত ইপিএস হয়েছে ৩ টাকা ৯০ পয়সা, আগের হিসাব বছরে যা ছিল ৭ টাকা ৮৮ পয়সা। ৩০ জুন প্রতিষ্ঠানটির সম্মিলিত এনএভিপিএস দাঁড়ায় ৯৯ টাকা ৮৯ পয়সা, আগের হিসাব বছর শেষে যা ছিল ৯৭ টাকা ৪৬ পয়সা।


সর্বশেষ রেটিং অনুযায়ী কোম্পানিটির ঋণমান দীর্ঘমেয়াদে ‘ডাবল এ’ ও স্বল্পমেয়াদে ‘এসটি-টু’। ৩০ জুন সমাপ্ত ২০২০ হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনসহ প্রাসঙ্গিক অন্যান্য তথ্যের ভিত্তিতে এ প্রত্যয়ন করেছে ক্রেডিট রেটিং ইনফরমেশন অ্যান্ড সার্ভিসেস লিমিটেড (সিআরআইএসএল)।

২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ২৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল বিএসআরএম লিমিটেড। ২০১৮ হিসাব বছরের জন্য ১০ শতাংশ নগদের পাশাপাশি ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ পেয়েছিলেন কোম্পানির শেয়ারহোল্ডাররা।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বৃহস্পতিবার বিএসআরএম লিমিটেড শেয়ারের সর্বশেষ দর ছিল ৭৪ টাকা। সমাপনী দর ছিল ৭৪ টাকা ৩০ পয়সা। এক বছরে শেয়ারটির সর্বনিম্ন ও সর্বোচ্চ দর ছিল যথাক্রমে ৪৭ টাকা ১০ পয়সা ও ৮০ টাকা ৮০ পয়সা।

২০১৫ সালে তালিকাভুক্ত কোম্পানিটির অনুমোদিত মূলধন ৫০০ কোটি টাকা। পরিশোধিত মূলধন ২৩৬ কোটি ৬ লাখ ৮০ হাজার টাকা। রিজার্ভে রয়েছে ২ হাজার ৭১ কোটি ৮৫ লাখ টাকা। কোম্পানির মোট শেয়ার সংখ্যা ২৩ কোটি ৬০ লাখ ৬৮ হাজার ২৩৭। এর ৪০ দশমিক ৯৮ শতাংশ রয়েছে উদ্যোক্তা পরিচালকদের হাতে। এছাড়া ১৯ দশমিক ৬৪ শতাংশ প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী, ১৭ দশমিক শূন্য ৭ শতাংশ বিদেশী বিনিয়োগকারী ও বাকি ২২ দশমিক ৩১ শতাংশ শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে রয়েছে।

সর্বশেষ নিরীক্ষিত ইপিএস ও বাজারদরের ভিত্তিতে এ শেয়ারের মূল্য-আয় (পিই) অনুপাত ১৯ দশমিক শূন্য ৫, সর্বশেষ অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনের ভিত্তিতে যা ১৩ দশমিক শূন্য ৮।

 

শেয়ারবিজনেস24.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: