Sahre Business Logo
bangla fonts
facebook twitter google plus rss

শ্যামপুরে আ. লীগ নেতা মোহাম্মদ উল্লাহ হত্যায় ৬ জনের ফাঁসি


১৬ মে ২০১৭ মঙ্গলবার, ০৭:৪১  পিএম

শেয়ার বিজনেস24.কম


শ্যামপুরে আ. লীগ নেতা মোহাম্মদ উল্লাহ হত্যায় ৬ জনের ফাঁসি

রাজধানীর শ্যামপুর-কদমতলী থানা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সভাপতি মোহাম্মদ উল্লাহ ও তার গাড়িচালক হারুনুর রশীদ হত্যা মামলায় ছয়জনের ফাঁসির রায় দিয়েছেন আদালত।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত ৬ আসামি হলেন, রায়হান খোকন (পলাতক), জাকির হোসেন ওরফে কালা জাকির, জাবেদ, আরিফ হোসেন, জুম্মুন ও হীরা (পলাতক)।

ঢাকার চুতর্থ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ জাহিদুল কবির মঙ্গলবার এ রায় ঘোষণা করেন। এছাড়া রায়ে দুজনের যাবজ্জীবন এবং চারজনকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

মৃত্যুদণ্ডের পাশাপাশি প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামি হলেন, শরিফুল ইসলাম ও আমির হোসেন। যাবজ্জীবনের পাশাপাশি প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন আদালত।

খালাসপ্রাপ্ত চার আসামি হলেন- শাহ আলম, শফিকুল আলম ওরফে সুমন, ইমন ওরফে কালু মিয়া ও মিলন। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের খালাস প্রদান করেন আদালত।

রাজধানীর ৫৩নং (সাবেক ৮৯) ওয়ার্ড কাউন্সিলর নির্বাচন নিয়ে এ হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়। মামলার আসামি রায়হান খোকন ও ভিকটিম মোহাম্মদ উল্লাহ ওই ওয়ার্ড থেকে আওয়ামী লীগের কাউন্সিলর প্রার্থী ছিলেন। তৎকালীন সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট সানজিদা খানম মামলার ভিকটিম মোহাম্মদ উল্লাহকে কাউন্সিলর পদে প্রকাশ্যে মনোনয়ন দেন। মামলার আসামি রায়হান খোকন তা মেনে নিতে পারেননি। ফলে রায়হান খোকনের সঙ্গে ভিকটিমের শত্রুতা শুরু হয়। মামলার আসামিরা তাদের পথের কাঁটা সরানোর জন্য ২০১১ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি পূর্বপরিকল্পিতভাবে কদমতলী থানাধীন কমিশনার রোডে মোহাম্মদ উল্লাহ ও তার গাড়িচালক হারুনুর রশীদকে গুলি করে হত্যা করে।

ওই ঘটনায় নিহত মোহাম্মদ উল্লার স্ত্রী কোহিনুর বেগম বাদী হয়ে রাজধানীর কদমতলী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

২০১১ সালের ৩১ অক্টোবর বর্তমান ডিবি পুলিশের কমিশনার রুহুল আমিন ১০ আসামির বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট প্রদান করেন। ২০১১ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন আদালত।

শেয়ারবিজনেস24.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: