Sahre Business Logo
bangla fonts
facebook twitter google plus rss

ফান্ডামেন্টাল অ্যানালাইসিস না টেকনিক্যাল এনালাইসিসে বিনিয়োগ?


০২ ডিসেম্বর ২০১৬ শুক্রবার, ০১:০৮  পিএম

শেয়ার বিজনেস24.কম


ফান্ডামেন্টাল অ্যানালাইসিস না টেকনিক্যাল এনালাইসিসে বিনিয়োগ?

শেয়ারবাজারে একটি স্টকের আপেক্ষিক আচরণ কী রূপ হবে- তা নির্ণয়ের জন্য বহু মত ও পথ রয়েছে। এই সব মত ও পথের অনুসারীদের অনেকেই বিনিয়োগে সফলতা পেয়েছেন আবার অনেকে ব্যর্থ হয়েছেন। তাই এদের গুণগ্রাহী যেমন আছে, কট্টর সমালোচকও তেমন আছে।

শতমত ও পথের মধ্যে জনপ্রিয় দুটি মতাদর্শ (two schools of thought) হল- ১. ফান্ডামেন্টাল এনালাইসিস ও ২. টেকনিক্যাল এনালাইসিস। অন্যদের মত দুই বিনিয়োগ কৌশল বা দর্শনের সমর্থনকারী এবং প্রতিপক্ষ উভয়েরই জোরালো অবস্থান রয়েছে।

শেয়ারবাজারে যারা নতুন বা যারা মাত্র বাজার নিয়ে জ্ঞান আহরণে সচেষ্ট হয়েছেন, তারা প্রায়ই এ দুই মতাদর্শের অনুসারীদের পাল্লায় পড়ে কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে পরেন। এক পক্ষের মুরিদরা যদি ডানের পথ দেখায় তো অপরপক্ষ বামের পথ দেখায়। উভয়ের পূর্ব-পশ্চিম অবস্থানের কারণ বুঝতে বুঝতেই নতুনেরা হয়রান।

তাই আজ চেষ্টা করছি অল্প পরিসরে নতুনদের বিনিয়োগ কৌশলের তুলনামূলক একটি চিত্র উপস্থাপন করার এবং সেই সাথে কিছু প্রচলিত ভুল ধারণা শুধরে দেয়ার।

টেকনিক্যাল এনালাইসিস : এই মতাদর্শের অনুসারীরা দক্ষ বাজার এ তত্ত্বে (efficient market theory) বিশ্বাসী। তারা বিশ্বাস করেন ‘বাজার সব সময় নির্মোহ আচরণ করে। কারণ সে সব কিছু জানে’। [Market is always right because it knows every thing]

একটি কোম্পানির অতীত, বর্তমান ও নিকট ভবিষ্যৎ সব তথ্যই বাজার জানে। তাই এখানে বিনিয়োগকারীরা নিজেদের বিচার-বুদ্ধি প্রয়োগ করে সুবিবেচনা প্রসূত মূল্য নির্ধারণ করেন। অকশনের বাজারে সবাই নিজেদের হ্যাঁ-না (ক্রয়/বিক্রয়) ভোট দিয়েই যোগ্য দাম ঠিক করেন। তাই এখানে বিজয়ী তথা স্রোতের পক্ষেই নৌকা চালাতে হয় (Trend is your friend)।

পরাজিতদের ভাগ্যে জোটে শুধুই লাঞ্ছনা ( Don’t fight against the Market. if you leave the market today, Mr. Market will leave you tomorrow)।

অন্যভাবে বলতে গেলে টেকনিক্যাল এনালাইসিসে ‘চাহিদা-যোগান’ এটি-ই সব কিছুর নিয়ন্ত্রক। ষ্টকের প্রাইস এবং ভলিউম আপনাকে বলে দেবে- হাওয়া এখন কোন দিকে। কোম্পানির ফান্ডামেন্টাল (পণ্য বিক্রি, উৎপাদন ব্যয়, লাভ-লোকসান, ঋণ, পূঁজি ইত্যাদি)। তথ্য জানার কোন প্রয়োজন নাই। কারণ বাজার এগুলর সব কিছু জানে এবং সব জেনেই ষ্টকের দাম নির্ধার করে।

বাজার ছন্দ (Pattern) মেনে চলে, আপনি ততক্ষণ লাভবান হবেন, যতক্ষণ এই ছন্দ ঠিক থাকবে। ছন্দ পতন হলেই আপনি বিপদে পড়বেন। মূলত স্বল্প মেয়াদী (অনূর্ধ ৩ মাস) বিনিয়োগের জন্য টেকনিক্যাল এনালাইসিস আদর্শ। আবহাওয়া বদলের মতই মানুষের মন বদলায়, আজকে হাস্যজ্জ্বল তো কালকে বিষাদময়।

ফলে চাহিদা-যোগান পরিস্থিতি নিমিষেই বদলে যেতে পারে। মার্কেট সেন্টিমেন্ট নির্ভর টেকনিক্যাল এনালাইসিস তাই দীর্ঘ মেয়াদী বিনিয়োগের জন্য অনুপযুক্ত। একজন টেকনিক্যাল এনালিস্ট হিসেবে আপনার সাফল্য নির্ভর করবে মার্কেট টাইমিং এর ওপর। টাইমিং যত ভাল হবে, আপনার পকেট তত ফুলে ফেঁপে উঠবে।

ফান্ডামেন্টাল এনালাইসিস : এই মতাদর্শের অনুসারীরা দক্ষ বাজার তত্বে (efficient market theory) আস্থাশীল নয়। ‘দক্ষ বাজার ব্যবস্থা’ এর পূর্ণ কার্যকারীতা তাত্ত্বিকভাবে প্রমাণ করা গেলেও বাস্তবে এটি পূর্ণ মাত্রায় ক্রিয়াশীল নয়। অবাধ তথ্য প্রবাহের যুগেও কোম্পানির ফান্ডামেন্টাল তথ্য একই সময়ে একই গতিতে সব বিনিয়োগকারীর কাছে পৌছায় না।

আবার একই সময়ে সব তথ্য প্রাপ্তি নিশ্চিত করা গেলেও সবাই একই মাপকাঠিতে তাদের বিচার-বিশ্লেষণ করেনা। ফলে ষ্টকের অন্তর্র্নিহিত মূল্য (Intrinsic Value) ও বাজার মূল্যে পার্থক্য সৃষ্টি হয়। কোম্পানির আর্থিক বিবরণী, ভবিষ্যৎ ব্যবসায়িক সম্ভাবনা/প্রতিবন্ধকতা, সরকারি নীতি ও সামগ্রিকভাবে দেশের আর্থিক ব্যবস্থাপনা বিবেচনা করে একটি কোম্পানিকে মূল্যায়ন করা হয়। যা থেকে এর ষ্টকের অন্তর্র্নিহিত মূল্য নির্ধারণ করা হয়।

ষ্টকের অন্তর্নিহিত মূল্য ও বাজার মূল্যে পার্থক্য থেকেই অতি মুল্যায়িত ও অবমূল্যায়িত অবস্থার সৃষ্টি হয়। একজন ফান্ডামেন্টাল এনালিস্ট অবমুল্যায়িত ষ্টক ক্রয় করে এবং অতিমুল্যাতিত ষ্টক বিক্রি করে মুনাফা করে (Price what you pay and Value what you get)। তবে কোন ষ্টকের অতিমুল্যায়িত বা অবমূল্যায়িত অবস্থা অনুধাবন করতে বাজারের সময় লাগে।

বাজার যখন এই পার্থক্য আবিষ্কার করে তখনই চাহিদা-যোগান পরিস্থিতির পরিবর্তন ঘটে। তাই এখানে পূঁজি এবং সময় উভয়ই বিনিয়োগ করতে হয়। বাজারের কত আগে আপনি এই তথ্য আবিষ্কার করলেন, আর কত সময় অপেক্ষা করবেন, মূলত তার ওপরই ফান্ডামেন্টাল এনালিস্ট হিসেবে আপনার সাফল্য নির্ভর করছে।

Popular quotes

Technical Analysis (TA) –
1. Trend is your friend, be with the trend.
2. Market is always right. Don’t fight against the Market.
3. Stock makes pattern and history tends to repeat itself.
4. Buy high, sell higher.
5. Buy rumor, sell news.
6. Don’t love a company, only love profits.
7. Stay out when bear show up , get in when bull runs.
8. If you not risk enough, you won’t profit enough.
9. Timing is everything that decide your investment fate.
10. Mr. market will give it back what it takes from you.

Fundamental Analysis (FA) –
1. Don’t follow the market trend, follow the company, because Mr. market tends to make mistake.
2. Price what you pay and value what you get. In stock market every one knows the price but very few know the value.
3. Don’t switch too many, act like an entrepreneur. Stay with a company till it goes well.
4. Only trust what your analysis says. Even pro analysts make mistake.
5. Buy low, sell high. Back stocks (fundamentally good) that abandon by others.
6. Buy a good company with reasonable price, don’t buy a reasonable company with wonderful price.
7. Consider bear market as an opportunity to buy good companies in bargain price.
8. History only tells the past. To go forward you need to see through the windshield not the rear view mirror.
9. Always think about the margin of safety, don’t lose your money.
10. If you aren’t willing to own a stock for ten years, don’t even think about owning it for ten minutes. The perfect holding period is lifetime.

তাই দুই কৌশলের চিন্তা ধারায় ব্যাপক পার্থক্য রয়েছে। নতুন কোনো বিনিয়োগ উপদেশ শোনার পরে ভাবুন- উপদেষ্টা কোন মতাদর্শে (two schools of thought) বিশ্বাসী। যদি আপনার সাথে মিলে যায় তবেই উপদেশগুলো আপনার জন্য প্রযোজ্য। পুঁজিবাজারের সব কিছু সবার জন্য সমানভাবে ফলদায়ক নয়। তাই আপনার সাথে মানসই কৌশল অবলম্বন করুন।

শেয়ারবিজনেস24.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: