Nahee Aluminum
Share Business Logo
bangla fonts
facebook twitter google plus rss

পন্টিংয়ের আইপিএল একাদশে যারা


২৮ এপ্রিল ২০১৭ শুক্রবার, ০৪:৫৫  পিএম

শেয়ার বিজনেস24.কম


পন্টিংয়ের আইপিএল একাদশে যারা

শেষের শুরুর অপেক্ষায় আইপিএল। প্রতিটি দলের প্রথম পর্বের খেলা শেষ। দ্বিতীয় পর্বের খেলাও শুরু হয়ে গেছে। এখনো পর্যন্ত যত ম্যাচ হয়েছে সেগুলো দেখেই রিকি পন্টিংকে বলা হয়েছিল এবারের আইপিএলের সেরা একাদশ বেছে নিতে। সাবেক মুম্বাই ইন্ডিয়ান কোচ বেছেও নিয়েছেন। তবে মজার ব্যাপার, আইপিএলে মূল একাদশে মাত্র চারজন বিদেশি খেলোয়াড় রাখার সুযোগ থাকলেও পন্টিংয়ের একাদশে সুযোগ পেয়েছেন চার ভারতীয়, সাতজনই বিদেশি।

পয়েন্টে সবচেয়ে এগিয়ে থাকা কলকাতা নাইট রাইডার্সের কেউ সুযোগ পাননি এ দলে। কিন্তু সবার শেষে থাকা দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের একজন ঠিকই জায়গা করে নিয়েছেন। আর পন্টিংয়ের সাবেক দল মুম্বাইয়ের চারজন আছেন এ দলে। ব্যাটিং লাইন আপ অনুযায়ী পন্টিংয়ের বাছাই করা দল এবং এ নিয়ে তাঁর মন্তব্য দিয়ে দেওয়া হলো:

১. হাশিম আমলা, কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব (৭ ম্যাচ, ২৯৯ রান; সেঞ্চুরি: ১, ফিফটি: ২)
‘ক্যারিয়ারের শেষভাগে চলে এসেছে আমলা। তবু এ আইপিএলে যেমন খেলছে এত ভালো কখনো খেলতে দেখেনি আমি। সে দারুণ ফর্মে আছে, ভালো শট খেলছে, দ্রুত রান তুলছে এবং নিয়মিত রান করছে।’

২. ডেভিড ওয়ার্নার, সানরাইজার্স হায়দরাবাদ (৭ ম্যাচ, ২৮২ রান; ফিফটি: ২)
‘আমি ভেবেছিলাম ওয়ার্নার টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় হবে এবং ও সে পথেই এগোচ্ছে। সে বিধ্বংসী, দারুণ শুরু এনে দিচ্ছে এবং ওর অধিনায়কত্বও ভালো হচ্ছে।’

৩. সুরেশ রায়না, গুজরাট লায়ন্স (৮ ম্যাচ, ৩০৯ রান; ফিফটি: ২)
‘গত পাঁচ-ছয় মৌসুম ধরে আইপিএলের অন্যতম সেরা খেলোয়াড়। সে নিয়মিত রান করে, ম্যাচ জেতায়। সে যখনই ফিফটি বা এর বেশি রান করে, দল জেতার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।’

আইপিএলে এবারের ভারতীয় চমক নীতিশ। ছবি: বিসিসিআই
আইপিএলে এবারের ভারতীয় চমক নীতিশ। ছবি: বিসিসিআই
৪. জস বাটলার, মুম্বাই ইন্ডিয়ানস (৮ ম্যাচ, ২৩০ রান; ফিফটি: ১)
‘আমি জানি সে এবার ইনিংস উদ্বোধন করছে, কিন্তু আমার দলে চারেই থাকবে। দলকে ভালো শুরু এনে দেয় এবং দলের উইকেটকিপারও সে।’

৫. নীতিশ রানা, মুম্বাই ইন্ডিয়ানস (৮ ম্যাচ, ২৬৬ রান; ফিফটি: ৩)
‘সে দুর্দান্ত এক ব্যাটসম্যান এবং স্পিনারদের ভালো মারে। দারুণ তরুণ প্রতিভা। ’

৬. গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ( ৭ ম্যাচ, ১৯৩ রান; সেরা ৪৪*)
‘ব্যাটিং লাইনআপে যেকোনো জায়গায় তাঁকে রাখা যায়। দুর্দান্ত ফিল্ডার এবং কাজে লাগার মতো অফ স্পিন করতে পারে। ১৮০ স্ট্রাইক রেটে রান নিয়েছে সে।’

৭. ক্রিস মরিস, দিল্লি ডেয়ারডেভিলস (৭ ম্যাচ; ১২৬ রান ও ১২ উইকেট)
‘নতুন বলে ঘণ্টায় ১৪৫ কিলোমিটার গতিতে বল করতে পারে। সুইং করাতে পারে, ইয়র্কার দিতে পারে। ব্যাটিংয়েও বড় বড় শট নিতে পারে।’

৮. হরভজন সিং, মুম্বাই ইন্ডিয়ানস (৭ ম্যাচ, ৪ উইকেট; ইকোনমি ৫.৮৮)
‘খুবই কিপটে বোলিং করছে। সে নতুন বলে বল করতে পারে, বৈচিত্র্য অনেক এবং সব পরিস্থিতিতে বল করতে পারে। কোনো চিন্তা ছাড়াই সে দলে থাকবে।’

৯. ভুবনেশ্বর কুমার, সানরাইজার্স হায়দরাবাদ (৭ ম্যাচ, ১৬ উইকেট; ইকোনমি ৬.২৮ )
‘পুরোপুরি একজন সুইং বোলার যে ইনিংসের শুরুতেই উইকেট নেয়। ওর ইকোনমি রেটও খুব ভালো।’

আফগান লেগ স্পিনার চমকে দিয়েছেন সবাইকে। ছবি: বিসিসিআই
আফগান লেগ স্পিনার চমকে দিয়েছেন সবাইকে। ছবি: বিসিসিআই
১০. মিচেল ম্যাকলেনাহান, মুম্বাই ইন্ডিয়ানস (৮ ম্যাচ, ১২ উইকেট; ইকোনমি ৮.৭১)
‘যেকোনো সংস্করণে উইকেট পাওয়ার দারুণ ক্ষমতা ওর। শেষ দিকে ভালো ব্যাট করতে পারে, আর ফাস্ট বোলার হিসেবে খুব ভালো ফিল্ডারও।’

১১. রশিদ খান, সানরাইজার্স হায়দরাবাদ (৭ ম্যাচ, ১০ উইকেট; ইকোনমি ৬.৯৬)
‘প্রথম আসরেই যা করছে খুব ভালো লেগেছে। সে একজন লেগ স্পিনার এবং আমরা সবাই জানি এ টুর্নামেন্টে লেগ স্পিনাররা কত গুরুত্বপূর্ণ।’ সূত্র: ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

শেয়ারবিজনেস24.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: